বিজ্ঞপ্তি
সবাই কে এফসিএন নিউজ পোর্টালের পক্ষথেকে জানাই অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা
শীর্ষ সংবাদ
রংপুর মহানগর যুবদলের বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত রংপুরে সবজির দামে নাভিশ্বাস পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই ছাত্রলীগ কর্মী নিহত গোবিন্দগঞ্জে নেসকো বিদ্যূৎ বিভাগের অনিয়ম দূর্নীতির বিরুদ্ধে গ্রাহক সমিতির মানববন্ধণ রংপুরে অধ্যক্ষ নাহিদা ইয়াসমিন এর দুর্নীতির মামলায় স্বাক্ষীর তলব দুদকের গাইবান্ধায় ছেলের ধারালো অস্ত্রের কোপে বৃদ্ধ বাবা আহত ফুলবাড়ীতে বিশ্ব এন্টিবায়োটিক সচেতনতা সপ্তাহ পালন দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাইকোলজিস্ট নিয়োগ দিতে হাইকোর্টে রিট গাইবান্ধায় সংস্কার না করায় মৃত্যু ফাদে পরিণত সেতুটি ভূরুঙ্গামারীতে আবাদী জমি রক্ষায় কৃষাণ- কৃষাণীদের মানব বন্ধন
গাইবান্ধায় সংস্কার না করায় মৃত্যু ফাদে পরিণত সেতুটি

গাইবান্ধায় সংস্কার না করায় মৃত্যু ফাদে পরিণত সেতুটি

এস,এম শাহাদৎ হোসাইন গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি: গাইবান্ধায় একটি সেতুর অভাবে চরম দূর্ভোগ পোহাচ্ছে তিনটি উপজেলার কয়েক লাখ মানুষ। সাঘাটা-গাইবান্ধা রাস্তার সদর উপজেলার বাদিয়াখালীতে ৬০ বছর আগে আলাইনদীর উপর নির্মাণ করা হয় সেতুটি। দীর্ঘদিনেও এটি সংস্কার না হওয়ায় চলাচলের অনুপযোগী হয়ে মৃত্যু ফাদে পরিণত হয়েছে। ব্যস্ততম রাস্তায় সরু সেতু দিয়ে চলাচল করতে সৃষ্টি হচ্ছে দীর্ঘ যানজটের। এতে বিপাকে পড়েছে স্কুলগামী শিক্ষার্থী ও অসুস্থ ব্যক্তিরা। দুর্ভোগের কথা স্বীকার করে দ্রুত সেতু নির্মাণের আশ্বাস দিয়েছে জেলা সড়ক বিভাগ। সাঘাটা-গাইবান্ধা রাস্তার গাইবান্ধা সদর উপজেলার বাদিয়াখালীতে ১৯৬০ সালে আলাইনদীর উপর দিয়ে সেতুটি নির্মাণ করা হয়। ১৯৯৮ সালের ভয়াবহ বন্যায় সেতুটির একাংশ ভেঙ্গে গেলে গাইবান্ধা সড়ক ও জনপথ বিভাগ থেকে বেইলি ব্রীজে রূপান্তর করে সাময়িকভাবে যানবাহন ও লোকজনের চলাচলের উপযোগী করা হয়। তখন থেকে বেইলি ব্রীজটিতে সতর্কতার সঙ্গে যানবাহন ও পথচারী পারাপার হচ্ছে। কিন্তু সেতুটি সরু ও ঝুকিপূর্ণ হওয়ায় চরম দূর্ভোগে পড়েছে দু-পাড়ের কয়েক লাখ মানুষ। সেতুটিতে প্রায় দুর্ঘটনায় পড়তে হচ্ছে পারাপারের যানবাহন ও পথচারীদের। গাইবান্ধা শহরের সাথে ফুলছড়ি, সাঘাটা ও সদর উপজেলার একাংশের যোগাযোগের একমাত্র রাস্তা এটি। এ সেতু দিয়ে ভ্যান, সিএনজিচালিত অটোরিক্সা, বাস, ট্রাকসহ কয়েক শত যানবাহন চলাচল করে প্রতিদিন। এ বিষয়ে গাইবান্ধা জেলা সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আসাদুজ্জামান বলেন, সেতুটি পুনঃ নিমার্ণের জন্য ইতিমধ্যেই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। পরিকল্পিতভাবে ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে সেতুটি প্রশস্তসহ সেতুর জন্য আলাদাভাবে প্রশস্ত রাস্তা নির্মাণের জন্য নদীর দুই পাড়ে কিছু জায়গা অধিগ্রহণ করা হবে। জায়গা অধিগ্রহণ স¤পন্ন হলেই দ্রুত সেতুটি নির্মাণ করা হবে।

অনুগ্রহ করে নিউজটি আপনার টাইম লাইনে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *